Bangabandhu Shishu Kishore Mela

বিগত ৪ বছর ধরে কেন্দ্রীয়ভাবে টুঙ্গিপাড়ায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধুকন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার জন্মদিন পালন করা হয় । এ বছর করোনার কারণে বর্ণাঢ্য কর্মসূচি বাতিল করা হয়। কিন্তু গোপালগঞ্জ জেলা মেলা সিমিত পরিসরে অনুষ্ঠান আয়োজন করেন। সেই আয়োজনে অংশগ্রহন করেন কেন্দ্রীয় সভাপতি মিয়া মনসফ ও লিঁয়াজো কমিটির আহবায়ক সুনীল কুমার মালো ও সদস্য মনিরুজ্জামান লিটন এবং কেন্দ্রীয় সদস্য শেখ নূর কুতুবুল আলম, জেলার সভাপতি নূর আলম গাজী, সাধারণ সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান, টুঙ্গিপাড়ার সভাপতি আজিজুল ইসলামসহ জেলা উপজেলার বঙ্গবন্ধু শিশু কিশোর মেলার নেতৃবৃন্দ। কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ অংশগ্রহনের কারণে দিনব্যাপী কর্মসূচিটি জাতীয় কর্মসূচিতে পরিণত হয়।

প্রথমে কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দসহ জেলা ও উপজেলার নেতৃবৃন্দ টুঙ্গিপাড়ায় বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। পরে বঙ্গবন্ধুর কবর জিয়ারত শেষে সমাধি কমপ্লেক্সস্থ জামে মসজিদের পেশ ইমাম মোনাজাত পরিচালনা করেন। তিনি বঙ্গবন্ধুসহ বঙ্গবন্ধু পরিবারের নিহত শহীদদের আত্মার মাগফেরাত কামনা করে মোনাজাত করেন এবং মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধুকন্যার শেখ হাসিনার সু-স্বাস্থ্য ও দীর্ঘ জীবন কামনা করেন।

বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে শ্রদ্ধা নিবেদন, জিয়ারত ও মুনাজাত শেষে আসরের নামাজের পর মাননীয় শেখ পাড়া মসজিদে দোয়া ও মিলাদের আয়োজন করা হয়। এতে অংশ নেন কেন্দ্রীয়, জেলা ও উপজেলার নেতৃবৃন্দ।

টুঙ্গিপাড়ার কর্মসূচি শেষে গোপালগঞ্জ জেলা মেলার কার্যালয়ে সন্ধ্যায় কেক নেতৃবৃন্দ কেক কাটেন জেলা ও সদরের নেতৃবৃন্দকে নিয়ে।

সারাদিন কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ ব্যস্ত সময় কাটিয়ে রাতে ঢাকায় ফেরেন।

Leave a Comment

Your email address will not be published.